Connect with us

করোনা

শহরে বাড়ি পেল চীনের দুর্গম পর্বতের সেই শিক্ষার্থীরা

Published

on

চীনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় সিচুয়ান প্রদেশের একটি গ্রাম আতুলিয়ার। প্রত্যন্ত এলাকায় পাহাড়ের চূড়ায় ৮০০ মিটার উঁচুতে অবস্থিত ২০০ বছরের পুরনো এ গ্রামটি বিশ্ববাসীর নজরে আসে ২০১৬ সালে। সে সময় ফটোগ্রাফারদের তোলা গ্রামটির কিছু ছবি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। তাতে দেখা যায়, বেতের মই ব্যবহার করে ৮০০ মিটার খাড়া পর্বতের গা বেয়ে শিশু ও পূর্ণবয়স্করা ওঠা-নামা করেন। এটা তাঁদের দৈনন্দিন জীবনচিত্র। বড়রা প্রয়োজনীয় রসদ নিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ মইপথ বেয়ে উঠছে-নামছে, শিশুরা আসছে-যাচ্ছে স্কুলে। সংবাদমাধ্যমের কল্যাণে আতুলিয়ার নামের গ্রামটি বিশ্বব্যাপী পরিচিতি পায়। এত দিন পর ওই গ্রামবাসী একটি হাউজিং এস্টেটে পুনর্বাসিত হলো। তারা পেয়েছে শহুরে বাড়িঘর।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানা যায়, দারিদ্র্য বিমোচন কর্মসূচির অংশ হিসেবে দুর্গম ওই পার্বত্য গ্রামের বাসিন্দাদের শহরের একটি হাউজিং এস্টেটে পুনর্বাসন করছে চীন কর্তৃপক্ষ। ওই গ্রামের ৮৪টির মতো পরিবারকে নতুন করে তৈরি করা ফ্ল্যাট দেওয়া হয়েছে। ২০২০ সালের মধ্যে দেশ থেকে দারিদ্র্য দূরীকরণের কর্মসূচি নিয়ে এগোচ্ছে চীন সরকার। এই বিশাল প্রকল্পের আওতায়ই আতুলিয়ার গ্রামের বাসিন্দাদের পুনর্বাসিত করা হয়েছে।

২০১৬ সালে ওই সব ছবি ও ভিডিও সামনে আসার পরপরই সরকার পদক্ষেপ নেয় এবং বেতের মইয়ের বদলে স্টিলের তৈরি মইয়ের ব্যবস্থা করে। বিবিসি জানায়, এবার গ্রামটির সব পরিবারকে প্রায় ৭০ কিলোমিটার দূরে ঝাওজুয়ে শহরে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তাদের সবাইকে আসবাবপত্রে সজ্জিত অ্যাপার্টমেন্ট ব্লকে বাসা দেওয়া হবে। পরিবারের সদস্যসংখ্যা বিবেচনায় তাদের ৫০, ৭৫ ও ১০০ স্কয়ার মিটারের অ্যাপার্টমেন্ট দেওয়া হবে।

সংখ্যালঘু ইয়ি নৃগোষ্ঠীর এসব লোক প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে আতুলিয়ার গ্রামে বসবাস করে আসছিল। কিন্তু এবার তাদের জীবনের সবচেয়ে বড় পরিবর্তনটি ঘটেছে বলে মন্তব্য বিবিসির।

চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত গণমাধ্যমে আসা ছবিতে গ্রামটির বাসিন্দাদের হাস্যোজ্জ্বল অবস্থায় দেখা গেছে। তাদের মধ্যে একজন রাষ্ট্রায়ত্ত সম্প্রচার মাধ্যম সিজিটিএনকে বলেন, ‘আমি অত্যন্ত খুশি, আমি আজ নতুন একটি বাড়ি পেয়েছি।’

সূত্র : বিবিসি, সিএনএন।

Continue Reading
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ-সংবাদ

কপিরাইট © ২০১৮ -২০২১ স্কুল নিউজ। প্রধান সম্পাদক ডঃ মোমেনা খাতুন। ১৮/৬ মোহাম্মদিয়া হাউজিং, মোহাম্মদপুর, ঢাকা। যোগাযোগঃ info@schoolnews.com.bd