December 4, 2020, 10:52 am

বেঁচে গেল মানবজাতি, পৃথিবীর পাশ দিয়ে গেল বিরাট গ্রহাণু

বেঁচে গেল মানবজাতি, পৃথিবীর পাশ দিয়ে গেল বিরাট গ্রহাণু

কান ঘেঁষে না হলেও পাশ ঘেঁষে তো বটেই। কেটে গেল ফাঁড়া। পৃথিবীর পাশ কেটে বেরিয়ে গেল প্রায় ২ কিলোমিটার চওড়া গ্রহাণু। বুধবার ভোরে একবার পৃথিবীকে ‘হাই’ জানিয়ে চলে গেল এই গ্রহাণুটি।

পৃথিবী থেকে প্রায় ৩.৯ মিলিয়ন মাইল দূর দিয়ে ছুটে যায় গ্রহাণুটি। তবে এর কোনও প্রভাব পড়েনি পৃথিবীর ওপর। ঘটনার সময় মহাকাশের দিকে চোখ রেখেছিল নাসার বিজ্ঞানীরা।

নাসার বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন যদি এটি পৃথিবীর সঙ্গে কোনভাবে ধাক্কা খেত তাহলে পৃথিবীতে ভয়ঙ্কর প্রভাব পড়তে পারতো। কিন্তু সেরকম কোনো কিছু ঘটেনি।

সম্প্রতি মহাকাশবিদদের হাতে উঠে ছবি। একটি অবজারভেটরি থেকে সেই ইমেজ প্রকাশ্যে আনা হয়েছে। দেখা গিয়েছে, প্রায় ২ কিলোমিটার চওড়া এই গ্রহাণু মাউন্ট এভারেস্টের অর্ধেক।

অনেক গবেষকরা জানাচ্ছেন, আগামী ২০৭৯ অবধি এবার নিশ্চিত হতে পারেন বিশ্ববাসী। কারণ ২০৭৯ সালের এই এই গ্রহাণুটি পৃথিবীর কাছে আর ফিরবে না বলেই মনে করা হচ্ছে।

করোনা আবহে এই গ্রহাণু ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা চড়েছিল। কারণ, গ্রহাণুটি আসছে মাস্ক পরে। মাস্ক পরা এখনও বাধ্যতামূলক। সারা পৃথিবীর মানুষ এখন মাস্ক পরার অভ্যাস করে ফেলেছেন। এই অবস্থায় নাকি পৃথিবীর দিকে ছুটে আসছে একটা আস্ত গ্রহাণু, যার নাকি মুখে বাঁধা মাস্ক।

মহাকাশ মহাকাশবিদরা জানিয়েছেন এই গ্রহাণুটির ভৌগলিক বৈশিষ্ট্য এমনই যাতে দেখে মনে হচ্ছে এটিকে ফেস মাস্ক পড়ানো হয়েছে। আসলে এই গ্রহাণুটি পর্বতের মত চড়াই-উৎরাই তে ভরা। আর সেই জন্যই এমন চেহারা তৈরি হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media





School News 2020© All rights reserved.

<