Connect with us

করোনা

ঘরবন্দি’ শিশুদের চাই মনের খোরাক

Published

on

করোনাভাইরাসের আক্রমণের কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে সরকার। আর তাই হঠাৎ করে শিশুরাও বেশ কিছুদিনের জন্য ছুটি পেয়েছে স্কুল থেকে। শুধু স্কুল নয়, এ সময়ে বড়দের মতো শিশুদেরও বাইরে না যাওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ। এমনিতে স্কুল, টিউশন, কোচিংসহ নানা ক্লাসের চাপে শিশুরা পরিবারের সঙ্গে খুব একটা সময় কাটাতে পারে না। এ সময়টা তাই সন্তানদের জন্য বরাদ্দ করতে পারেন পারিবারিক বন্ধন দৃঢ় করতে।
সাধারণ সময়ে ছুটির দিনেও খাওয়া, ঘুম, পরদিনের পড়াশোনা এগিয়ে রাখতে রাখতেই শেষ। তাই অনেকটা সময় পারিবারিক বলয়ে কাটানোর জন্য এ সময়ে পাওয়া ছুটি প্রত্যেক শিশুর জন্য এক বাড়তি পাওনা বটে। তাই মা–বাবারাও চাইছেন এ সুযোগে শিশুকে যতটা সম্ভব নিজেদের সঙ্গে রেখে গুণগত সময় দিতে।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মাহফুজা খানম বলেন, “আজকাল বাবা-মা দুজনই ব্যস্ত থাকেন, সন্তানদের সময় দিতে পারেন না। যেহেতু এখন সময় পাওয়া গেছে, তাই বেশি সময় বাচ্চাদের সাথে কাটাতে হবে যেন তাদের বন্ডিংটা আরও স্ট্রং হয়।”
শিশুদের পছন্দের কাজে ব্যস্ত রাখার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, “শিশুদের ইতিবাচক চিন্তাভাবনা করা আর মাইন্ড ডাইভার্ট করে রাখার ব্যবস্থা করতে হবে। আমরা আজকাল শুধু পড়াশুনাই চাপিয়ে দেই বাচ্চাদের ওপর, এখন এটা করলে চলবে না।”
তার মতে, শিশুদের গাছ কিনে দিয়ে তা পরিচর্যা করার কথা বলতে পারেন অভিভাবকরা। গাছটাতে তারা প্রতিদিন পানি দিলে, যত্ন নিলে তারা ব্যস্ত থাকবে, এক ধরনের প্রশান্তিও কাজ করবে তাদের।
“এখন যেহেতু তাদের পোষা প্রাণি-পাখি বা মাছ এসব দেওয়া যাবে না, তাই বারান্দা, ছাদ বা বাসার নির্দিষ্ট স্থানে খাবার দিলে অনেক সময় পশু বা পাখি আসে খাবার খেতে। এ ধরনের কাজে তাদের নিয়োজিত রাখলে তাদের মন ভালো থাকবে।”
এছাড়াও শিশুদের বিভিন্ন ধরনের রঙ কিনে দিয়ে ছবি আঁকা বা নতুন গল্পের বই এনে দিয়ে বই পড়ায় তাদের ব্যস্ত রাখার পরামর্শ দেন তিনি।

শিশু মডেলঃ অপ্সরা

Continue Reading
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ-সংবাদ

কপিরাইট © ২০১৮ -২০২১ স্কুল নিউজ। প্রধান সম্পাদক ডঃ মোমেনা খাতুন। ১৮/৬ মোহাম্মদিয়া হাউজিং, মোহাম্মদপুর, ঢাকা। যোগাযোগঃ info@schoolnews.com.bd